সামাজিকতার আড়ালে রাজনীতির নোংড়ামি চর্চা

---

-মামুন মুনতাসির
————————
ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা যখন ঔষধ খেতে চায় না তখন মায়েরা কলার ভেতরে ঔষধ ডুকিয়ে খাওয়ান । এতে তারা মনে করে কেবল কলাই খাচ্ছে, কিন্তু এ কলার ভেতর দিয়ে যে, মা বাবার উদ্দ্যেশ্য দিব্বি হাসিল হয়ে যাচ্ছে তা তারা মোটেও আঁচ করতে পারে না । তেমনি বর্তমানে সামাজিক সংগঠন গুলো অরাজনৈতিক সংগঠন পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের গ্রহনযোগ্যতা পাওয়ার চেষ্টা করে । কিন্তু তারা যে রাবণের মত ছদ্মবেশি হয়ে ভেতরে ভেতরে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা লালন করে লংকার সিংহাসন সাজানোয় মত্ব হয়ে আছে, তা দিবালোকের ন্যায় এখন সাধারণ মানুষের কাছে পরিষ্কার হয়ে গেছে।
:
অনেকেই সামাজিক সংগঠনগুলোকে নিজেদের ফোকাস করার মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করছে । সামাজিক সংগঠন মানে, সামাজিক দায়বদ্ধতা । কিন্তু আজকাল পদের দায়বদ্ধতা মূখ্য হয়ে দাড়িয়েছে । কোন মতে সংগঠনের একটা পদ পেয়ে গেলে , তখন পা আর মাটিতে আটকে থাকতে চায় না । আবার ঐ পদটিকে টিকিয়ে রাখার জন্য রক্তস্রোত বয়ে দিতে কুণ্ঠাবোধ করে না ।
:
ধিক্ ! শত ধিক্ ।
তোমাদের এ নোংড়া মানসিকতায় । মানুষের ভাল করতে চায়লে কোন পদ বা রাজনৈতিক দলের আশ্রয় নেয়ার প্রয়োজন হয় না । যুগে যুগে যারা নিজেদের উৎসর্গ করে দিয়েছে মানব সেবায়, সমাজ সেবায় , তারা কেউ পদের জন্য বোমা ফাটায় নি । তারা বোমা ফাটিয়েছে আপন অস্তিত্বে। আর গলে গিয়েছিল মোমের মতন । মিশে গিয়েছিল মানব মনে । আজো তারা অম্লান হয়ে আছে সাধারণ মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় ।

লেখক-ছাত্র, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।


এ বিভাগের আরো খবর...
আত্মহত্যা ::: অস্থায়ী সমস্যার স্থায়ী সমাধান ! আত্মহত্যা ::: অস্থায়ী সমস্যার স্থায়ী সমাধান !

সামাজিকতার আড়ালে রাজনীতির নোংড়ামি চর্চা
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)