আত্মহত্যা ::: অস্থায়ী সমস্যার স্থায়ী সমাধান !

---

…..
প্রেমিক বিভিন্নভাবে ব্যবহার করেছে বহুদিন অথচ বিবাহের কথা বলাতে সে রাজী হয়নি, তাই তোমার জীবন দিয়ে এটার সমাধান খুঁজলে ? তোমার মৃত্যুতে ক্ষতিটা কার হলো ? ফেসবুকে ঘোষণা দিয়ে আত্মহত্যা করে বিরল দৃষ্টান্তের অংশ হলে বটে কিন্তু তুমি অস্থায়ী সমস্যার স্থায়ী সমাধানের যে পথে হাঁটলে সেটা মোটেও সঠিক ছিল না । এতটা আবেগী হলে জীবন চলে না । প্রেমিকের পরিবারের কেউ কোন নোংরা কথা বলেছে আর তুমি প্রেমিককে দায়ী করে ফ্যানে ঝুলে জীবন বিলিয়ে, নিজের জীবনের সাথে অন্য আরেকটি জীবনকেও ধ্বংস করে গেলে ? এইতো ভালোবাসা ! কিসের ভালোবাসা এটা, যেটাতে ভর করেছিলো নির্বিচার আবেগ । বিবাহের পূর্বে মাত্র কয়েক মাস কিংবা কয়েক বছর প্রেম করতে হবে কেন ? যেখানে বিবাহের পর সারাজীবন সুযোগ থাকবে মহাপ্রেমের । বিবাহের পূর্বের প্রেমিক/প্রেমিকাদের কি এমন যোগ্যতা ও গুন থাকে যা বিবাহ পরবর্তী স্বামী/স্ত্রীর মধ্যে থাকে না ।
……
যে প্রেম তোমাকে মৃত্যুর দিকে টানে সে প্রেম তোমাকে ছুঁইবে কেন ? মাত্র ২১ বছরের দাঁড়িয়েই তুমি তোমার জীবনের ইতি টানলে অথচ ভাবী জীবনের আলোরচ্ছটা তোমাকে একবারেও বাঁচতে আশ্বাস দেয়নি ? তোমার চেয়ে দোষটা তোমার পরিবার, প্রেমিক, প্রেমিকার পরিবার কিংবা সামাজিক পরিবেশের বেশি ছিল মানছি, কিন্তু নিজের জীবন দিয়ে প্রতিশোধ নেওয়াটা বোকামীর শীর্ষেই স্থান পাবে চিরকাল । তুমি বুদ্ধিমতীর পরিচয় দিতে পারোনি । যুগ যুগ সম্পর্ক করে আবার সম্পর্ক ভেঙ্গে যায়, তারপরেও তারা বেঁচে থাকে বাস্তবতাকে মেনে । আর তুমি ? পুরুষ হলে তোমাকে কাপুরুষ বলতাম কিন্তু নারী তাই ভীরুতেই আটকে গেলাম । তুমি প্রেমিকাদের আদর্শ হতে পারলে না বরং ঘৃণার সাথে উচ্চারণ হবে বহুকাল ।
…..
যে প্রেমের প্রারম্ভেই দেহ উৎসর্গ করতে হয় সেটাই এই সমাজের প্রেম । তোমার ক্ষেত্রে কি ঘটেছিল তা ভাবছি না কিংবা ধারনাও করছি না কিন্তু এই সমাজে প্রেমের অর্থ কিছুটা বিকৃতভাবেই উচ্চারিত হয় । প্রেমিক বিবাহের জন্য প্রস্তুত নয় শুনেই যে আত্মহত্যা করতে পারে, তেমন আবেগ নিয়ে মরলে বটে কিন্তু কষ্ট দিয়ে গেলে তোমার মাতাপিতাকে । ক্ষণকালের প্রেমিকের দোষে তুমি তোমার মাতাপিতার প্রতি ঋণটুকুও শোধ করে গেলে না ? যে প্রেমিকের জন্য তুমি আত্মহত্যা করলে সেই প্রেমিক তোমাকে ছাড়া বাঁচবে না-এইটা যদি ভেবে থাকো তবে তোমার চেয়ে বোকার স্বর্গে বোধহয় আর কেউ শক্তভাবে বাস করে না ।
….
সম্প্রতি রাজধানীতে পূর্ব ঘোষণা দিয়ে আত্মহত্যা করা মডেলের থেকে শিক্ষা আছে সকল তরুণ-তরুনী এবং তাদের মাতাপিতার জন্য । জীবনের চেয়ে প্রেমের মুল্য বেশি নয় এবং প্রেমের নামে দেহ উৎসর্গ করাও প্রকৃত প্রেমের দাবী নয় । প্রেমের সাথে আবেগ কিছুটা জড়িত বটে কিন্তু আবেগ যদি প্রেমের নামে বিবেকের ওপর প্রভূত্ব করে তবে আত্মহত্যা হবে প্রেমের পরিণতি । উঠতি বয়সের পিতামাতারাও একটু সজাগ দৃষ্টিতে খোঁজ রাখুন, আপনার সন্তানেরা কোথায় কি করছে । এটা আপনাদের দায়িত্ব । সামলিয়ে রাখতে না পালে বিবাহ দিয়ে দিন । সন্তান হারানোর চেয়ে পঙ্গুত্ববরণ করে বেঁচে থাকাও উত্তম কেননা প্রাণটা তো বাঁচে । শিক্ষা নিলে ভালো, নয়ত কাঁদতে হবে বহুজনের পরিবারকে । প্রেমিকারাও ভালো থাকবে আত্মহত্যা করা প্রেমিকদের ছেড়ে কিংবা প্রেমিকরাও বেঁচে থাকবে আত্মহত্যা করা প্রেমিকদের ভুলে ।

লেখক-রাজু আহম্মেদ, ছাত্র।


এ বিভাগের আরো খবর...
সামাজিকতার আড়ালে রাজনীতির নোংড়ামি চর্চা সামাজিকতার আড়ালে রাজনীতির নোংড়ামি চর্চা

আত্মহত্যা ::: অস্থায়ী সমস্যার স্থায়ী সমাধান !
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)